ঢাকাবুধবার , ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইটি বিশ্ব
  3. আজকের ঢাকা
  4. আজকের রাশিফল
  5. আদর্শ সদর
  6. আমাদের পরিবার
  7. আর্ন্তজাতিক
  8. ইসলামী জীবন
  9. উদ্ভাবন
  10. করোনা
  11. কুমিল্লা
  12. কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়
  13. কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন
  14. খুলনা
  15. খেলাধুলা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শেষ ধাপের পরীক্ষা শুরু করেছে জেঅ্যান্ডজে

admin
ডিসেম্বর ১৯, ২০২০ ৫:২৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। 
করোনাভাইরাসের টিকার শেষ ধাপের পরীক্ষা শুরু করেছে মার্কিন বহুজাতিক কোম্পানি জনসন অ্যান্ড জনসন (জেঅ্যান্ডজে)। গতকাল বৃহস্পতিবার তারা শেষ ধাপের পরীক্ষা শুরু করেছে, যেখানে ৪৫ হাজার স্বেচ্ছাসেবী প্রাথমিকভাবে অংশ নিচ্ছে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।
জনসন অ্যান্ড জনসনের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশে এরই মধ্যে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন পাওয়া ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি করোনা টিকা একজন ব্যক্তিকে তিন সপ্তাহের ব্যবধানে দুই ডোজ গ্রহণ করতে হলেও জেঅ্যান্ডজের টিকা নিতে হবে এক ডোজ। তারা এরই মধ্যে তাদের তৈরি টিকার শেষ ধাপের পরীক্ষা শুরু করেছে। প্রায়োগিক এই ধাপের প্রাথমিক ফল আগামী জানুয়ারি মাসের শেষ নাগাদ পাওয়া যাবে। করোনাভাইরাস মহামারিতে এরই মধ্যে গোটা বিশ্বের সাড়ে সাত কোটির বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। শীতের এই মৌসুমে ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে ছড়াচ্ছে। এ অবস্থায় ফাইজারের টিকা আশার আলো নিয়ে এসেছে। যুক্তরাষ্ট্রে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে মডার্নার তৈরি আরেকটি টিকা, যা অনুমোদনের জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) পরামর্শক সভা থেকে সুপারিশ করা হয়েছে। তবে এই দুই প্রতিষ্ঠানের তৈরি টিকা বিশ্বের অধিকাংশ মানুষের কাছে পৌঁছাতে অনেক সময় লাগবে। এ অবস্থায় জেঅ্যান্ডজের টিকার শেষ ধাপের পরীক্ষা শুরুর খবর আশার সঞ্চার করেছে। সব ঠিক থাকলে তারা আগামী ফেব্রুয়ারি নাগাদ এই টিকার অনুমোদন চেয়ে এফডিএর কাছে আবেদন করবে বলে এ সম্পর্কিত এক বিবৃতিতে জানিয়েছে। করোনা টিকা নিয়ে শুরু থেকেই অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। এর মধ্যে পরীক্ষার সবগুলো ধাপ পেরিয়ে ফাইজার ও মডার্না প্রথম সুখবরটি দিতে সমর্থ হয়। কিন্তু এখন এই দুই প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক মডেল নিয়ে কিছু প্রশ্ন উঠছে। কারণ, শুধু টিকা থেকেই তারা বিপুল আয় করছে। ঠিক এ জায়গাতেই আলোচনায় চলে এসেছে জেঅ্যান্ডজে ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্যোগ। কারণ, এরই মধ্যে করোনা টিকা থেকে মুনাফা করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি। তারা মহামারির সময়ে তাদের এই উদ্যোগকে অলাভজনক হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে আগেই। রয়টার্স জানায়, জেঅ্যান্ডজের করোনা টিকা তৈরির প্রকল্পটির নাম এনসেম্বলস, যা গত অক্টোবরে তাদের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ধাপটি এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বন্ধ রাখে। ওই পর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবী অংশ নেওয়া এক ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে পড়লে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়। পরে বিষয়টি পর্যালোচনা করা হয়। কিন্তু ‘ব্যাখ্যাতীত সেই অসুস্থতার’ পেছনে টিকার কোনো সংযোগ কুঁজে না পাওয়ায় আবার তারা তাদের গবেষণা চালু করে। জেঅ্যান্ডজে জানিয়েছে, শুরুতে তারা ৬০ হাজার লোকের ওপর তাদের তৈরি টিকার পরীক্ষা চালানোর লক্ষ্য স্থির করেছিল। কিন্তু মহামারির বিস্তার বিবেচনা করে এই সংখ্যা নামিয়ে ৪৫ হাজারে আনা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির তৈরি আরেকটি টিকারও শেষ ধাপের পরীক্ষা চলছে, যা ফাইজারের মতোই দুই ডোজ নিতে হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।